Apr 24, 2014, 4:15 am (BST)

সংবাদ শিরোনাম

বাসস রাষ্ট্রপতি : *বিশ্ববিদ্যালয় কখনোই মুনাফা অর্জনকারী ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হতে পারে না : রাষ্ট্রপতি*   |    জাতীয় সংবাদ : *জিএসপি সুবিধা পেতে ইতোমধ্যে প্রায় সকল শর্তই পূরণ করেছে বাংলাদেশ : শিল্পমন্ত্রী *বাল্যবিবাহ রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী *জুন মাসে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মান কাজ শুরু হবে : যোগাযোগমন্ত্রী*   |   বাসস প্রধানমন্ত্রী : **৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে অন্তত একটি ভোকেশনাল বিষয়ে শিক্ষা দেয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী **সরকার তৈরী পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের জন্য বাধ্যতামূলক বীমা চালুর বিষয়টি বিবেচনা করছে : প্রধানমন্ত্রী **   |    জাতীয় সংবাদ : *দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সুরক্ষায় সরকার সম্ভব সব ধরনের সহায়তা দেবে : আমির হোসেন আমু *দেশের গণমাধ্যম জগতের নেতৃত্ব দেয়া উচিত বাসস-এর : তথ্য সচিব *রাজধানীর বেগুনবাড়ি এলাকায় বেঙ্গল কোম্পানির গোডাউনে আগুন*   |    অথর্নীতি : *জিএসপি সুবিধা ফিরে পেতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে *মোবাইল ব্যাংকিংয়ের গ্রাহক সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য*   |   খেলাধুলার সংবাদ : *শ্রীলংকা টি-২০ দলের নতুন অধিনায়ক মালিঙ্গা *ইংলিশ কাউন্টি ক্লাব এসেক্সের বদান্যতায় ক্রিকেটে ফিরছেন ব্যাড বয় রাইডার *শেষ মুহূর্তে প্রস্তুত হবে সাওপাওলোর স্টেডিয়াম : ফিফা*   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : *স্বার্থে আঘাত এলে পাল্টা জবাব দেবে রাশিয়া : সের্গেই ল্যাভরভ *ইউক্রেন সংকটে কেরির গভীর উদ্বেগ প্রকাশ *কায়রোতে বোমা হামলায় পুলিশের জেনারেল নিহত *ভারতে কাল ১১৭ আসনে ৬ষ্ঠ পর্বের লোকসভা নির্বাচন*   |    বিভাগীয় সংবাদ : *চট্টগ্রামে সাংবাদিকতা বিষয়ে তিন দিনের মৌলিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষ *   |   
প্রচ্ছদ | যোগাযোগ | Print
 
 
 
আবহাওয়া
 
সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত
 
নামাযের সময়
 
 
 
নতুন পোশাক পেয়ে খুশি শিশু পরিবারের সদস্যরা
 
কুড়িগ্রাম, ১৭ সেপ্টেম্বর (বাসস) : নতুন পোশাক কেউ দিলে বাবার কথা মনে পড়ে। বাবা বেঁচে থাকলে কত জামা কাপড় কিনে দিতো। কত আদর করতো। বাবা বেঁচে নেই। শিশু পরিবারের বড় ভাইয়ারা আমাদের বাবার মতো দেখাশোনা করেন।
নতুন পোশাক পেয়ে এভাবেই অনুভূতি ব্যক্ত করেন কুড়িগ্রাম শিশু পরিবারের সদস্য শাহপরাণ ইসলাম। ৮ বছর ধরে এই শিশু পরিবারে আশ্রিত আছে সে। তার মতো ৭৭ জন পিতৃ-মাতৃহীন দরিদ্র অনাথ শিশু সোমবার নতুন পোশাক পেয়ে অভিভুত হয়। তাদের চোখে মুখে ফুটে ওঠে উচ্ছ্বাস। প্রত্যেক শিশুকে দেয়া হয় শার্ট-প্যান্ট, জুতা ও মোজা।
কুড়িগ্রাম আসনের সংসদ সদস্য মো. জাফর আলী ব্যক্তিগত উদ্যোগে শিশুদের নতুন পোশাক দেন। এ সময় জেলা তথ্য অফিসার নুরুন্নবী খন্দকার, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান বাবু, প্রেসক্লাব সভাপতি শফিখান উপস্থিত ছিলেন।
শিশু পরিবার সূত্রে জানা যায়, ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর উদ্যোগে কেয়ার প্রটেক্ট সেল্টার নামে শিশু পরিবারটির যাত্রা শুরু হয়। পরে ৮৬ সালে নামকরণ করা হয় সরকারি শিশু সদন। আর ১৯৯৩ সালে ৩ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত শিশু পরিবারটির নামকরণ করা হয় কুড়িগ্রাম সরকারি শিশু পরিবার। এখানে পিতৃহীন অথবা পিতৃ-মাতৃহীন ১০০ অনাথ শিশুর আশ্রয়ের ব্যবস্থা আছে। বর্তমানে আশ্রিত আছে ৭৭ জন। প্রথম শ্রেণী থেকে তৃতীয় শ্রেণী পর্যস্ত লেখাপড়ার ব্যবস্থা আছে।
শিশুদের স্বাবলম্বী ও শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে শিশুরা এরপর বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে পড়তে চাইলে তাদের লেখাপড়ার ব্যয়ভার বহন করা হয় সরকারিভাবে।
শিশু পরিবারের সদস্য রিজু, হাফিজুর, রায়হানের বাবা নেই। শিশু পরিবারেই দরিদ্র ঘরের এসব শিশুর বাস। অভাবের কারণে মা তাদের স্বাদ আহলাদ পূরণ করতে পারেননা। তাই নতুন জামা পেয়ে তারা খুব খুশি বলে জানায়। শিশু পরিবারের বড় ভাইয়া আবু তালেব জানান, অনাথ শিশুরা খেলাধুলা, গান বাজনা করতে পছন্দ করে। সরকারি শিশু পরিবারের উপ তত্বাবধায়ক হাবিবুর রহমান জানান, এমপি জাফর আলী শিশুদের নতুন পোশাক দেয়া পাশাপাশি শিশু পরিবারের জন্য একটি ফ্রিজ ও একটি কম্পিউটার দিয়েছেন।
এমপি জাফর আলী বলেন, প্রতি বছর এখানকার অনাথ শিশুদের নতুন পোশাক দেয়া হবে।
তিনি সমাজের বিত্তশালীদের এ ব্যাপারে সহায়তা করার আহবান জানান।
 
 
 
প্রচ্ছদ | যোগাযোগ | Print
সার্বিক তত্ত্বাবধানে : বাসস আই,টি বিভাগ এবং বাংলাদেশ অনলাইন লিমিটেড